ঢাকা, শুক্রবার, ৫ কার্তিক ১৪২৪, ২০ অক্টোবর ২০১৭

bangla news

অলওয়েদার রোড হলে আমার সড়কপথে হাওর ঘোরার স্বপ্নপূরণ হবে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৩-১৪ ৯:৩৩:১০ পিএম
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

কিশোরগঞ্জ: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, আমার স্বপ্ন, ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় সড়ক পথে ঘোরার। অলওয়েদার রোডের কাজ শেষ হলে আশা করছি আমার এ স্বপ্ন পূরণ হবে।

তিনি বলেন, কিশোরগঞ্জের তিন হাওর উপজেলার (ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম) অলওয়েদার রোডের কাজ দ্রুত শেষ করতে হবে। কারণ ২০১৮ সালের মধ্যে এ সড়কের কাজের মেয়াদ শেষ হবে। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই সড়কের কাজ ভালোভাবে শেষ করা প্রয়োজন।

মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) সন্ধ্যা ৬টার দিকে অষ্টগ্রাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি অলওয়েদার রোড সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেন, কিশোরগঞ্জের হাওরের তিন উপজেলার জনসাধারণের যোগাযোগের জন্য তৈরি করা হচ্ছে অলওয়েদার রোড। এ সড়কের নির্মাণ কাজ শেষ হলে অষ্টগ্রাম উপজেলার জনগণ ১০ মিনিটে মিঠামইন আর ২০ মিনিটে ইটনা উপজেলায় যেতে পারবে। তাই আপনারা যতো দ্রুত সম্ভব সড়কের কাজ ভালোভাবে শেষ করেন।

সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, অষ্টগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নাকি একজন ডাক্তার। এখানে ডাক্তার থাকে না। তাই হাওর এলাকার মতো দূর্গম ও অবহেলিত এলাকাগুলোর প্রতি সরকারের দৃষ্টি দেওয়া দরকার।

কিশোরগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিকের সভাপতিত্বে এ সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. আফজাল হোসেন, কিশোরগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. জিল্লুর রহমান, অষ্টগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শহীদুল ইসলাম জেমস, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলুল হক হায়দারী বাচ্চুসহ প্রমুখ।     
এর আগে মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতিকে বহনকারী হেলিকপ্টার অষ্টগ্রাম হেলিপ্যাডে অবতরণ করার পর জেলা পরিষদ ডাকবাংলো প্রাঙ্গণে তাকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। এরপর রাষ্ট্রপতি ব্যাটারি চালিত অটোরিকশায় চড়ে অষ্টগ্রাম ঘোরেন। এসময় অটোরিকশা থেকে অষ্টগ্রামের জনগণকে শুভেচ্ছা জানান তিনি।

অটোরিকশায় চড়েই তিনি অষ্টগ্রাম রোটারি ডিগ্রি কলেজের রজতজয়ন্তী অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। এরপর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শেষে একই অটোরিকশায় চড়ে সেখান থেকে জেলা পরিষদ ডাক বাংলোয় গিয়ে দুপুরের খাবার খেয়ে বিশ্রাম নেন রাষ্ট্রপতি।

পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে তিনি অষ্টগ্রাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সুধী সমাবেশে যোগ দেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৮ ঘণ্টা, মার্চ ১৪, ২০১৭
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa