Alexa
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ চৈত্র ১৪২৩, ২৮ মার্চ ২০১৭
bangla news
symphony mobile

গাজীপুরে প্রিজন ভ্যানে হামলার ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী মামলা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৩-০৭ ৯:১৬:০৫ এএম
মুফতি হান্নান, জব্দ ককটেল ও আটক মোস্তফা

মুফতি হান্নান, জব্দ ককটেল ও আটক মোস্তফা

গাজীপুর: গাজীপুরের টঙ্গীতে হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নান ও তার সহযোগীদের বহনকারী প্রিজন ভ্যানে ককটেল হামলার ঘটনায় টঙ্গী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

সোমবার (০৬ মার্চ) দিনগত রাতে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অজয় কুমার চক্রবর্তী বাদী হয়ে সন্ত্রাসবিরোধী ও অস্ত্র উদ্ধারের মামলাটি করেন।

মামলায় আটক মো. মোস্তফা কামালের (২২) নাম উল্লেখ ও আরো ৩/৪ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। 

আটক মোস্তফা কামাল ময়মনসিংহের তারাকান্দা থানার পাগলী এলাকার মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে। 

টঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফিরোজ তালুকদার জানান, আদালতে হাজিরা শেষে মুফতি হান্নান ও তার সহযোগীসহ ২১ জন আসামিকে ঢাকা থেকে একটি প্রিজন ভ্যানে করে কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারে নেওয়া হচ্ছিল। সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক দিয়ে টঙ্গীর কলেজ গেট এলাকায় সফিউদ্দিন সরকার একাডেমি স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে পৌঁছালে ওই প্রিজন ভ্যান লক্ষ্য করে দু’টি ককটেল নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। 

এসময় মোস্তফা কামাল নামে ওই যুবককে দু’টি ব্যাগ ভর্তি ১০-১৫টি ককটেল, চাপাতি ও একটি সাউন্ড গ্রেনেডসহ আটক করা হয়। এ ঘটনায় রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে টঙ্গী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। 

গাজীপুর ট্রাফিক বিভাগের ইন্সপেক্টর মো. কাওছার আলম জানান, মুফতি হান্নান ও তার সহযোগীদের বহনকারী প্রিজন ভ্যানে তিনটি ককটেল নিক্ষেপ করা হয়। এর মধ্যে দু’টির বিস্ফোরণ ঘটে। 

কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারের জেল সুপার মো. মিজানুর রহমান জানান, ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরী হত্যাচেষ্টা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ও হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নান ও তার সহযোগীরা কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারে বন্দি আছে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার হাজিরা দিতে সোমবার সকালে প্রিজন ভ্যানে  মুফতি হান্নান ও তার সহযোগীসহ ২১ জনকে ঢাকায় আদালতে পাঠানো হয়। হাজিরা শেষে তারা কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারে ফিরেছেন। 

**টঙ্গীতে ‘মুফতি হান্নানকে বহনকারী’ প্রিজন ভ্যানে ককটেল হামলা

বাংলাদেশ সময়: ০৯১৫ ঘণ্টা, মার্চ ০৭, ২০১৭/আপডেট: ০৯৪৪ ঘণ্টা
আরএস/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

You May Like..