[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৬ জুলাই ২০১৮

bangla news

ইজতেমা নয়, দিল্লি ফেরত যাচ্ছেন মাওলানা সাদ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০১-১১ ৫:৩১:২০ পিএম
মাওলানা সাদ। ছবি: সংগৃহীত

মাওলানা সাদ। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: আন্দোলনের মুখে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ না দিয়ে দিল্লি ফেরত যাচ্ছেন দিল্লির নিজামউদ্দিন মারকাজের মুরব্বি মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভি।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) বিকেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে তাবলিগ জামাতের বিবাদমান পক্ষকে নিয়ে  অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। বিকেল ৩টায় শুরু হওয়া এ বৈঠক চলে সোয়া ৫টা পর্যন্ত।  

বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ইজতেমা যথারীতি শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) থেকে শুরু হবে। যাদের নিয়ে বিতর্ক তারা সবাই সমঝোতায় এসেছেন। মাওলানা সাদ সুবিধা মতো সময়ে দিল্লিতে ফিরে যাবেন, টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে যাবেন না। 

‘তিনি কাকরাইলে অবস্থান করেছেন। সেখানেই নামাজ কালাম আদায় করছেন। বর্তমানে যে বিরোধ চলছে আগামীতে তা আরও ভালোভাবে মিটে যাবে।’

তবে বৈঠকের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে, শুক্রবার বাদ জুমা মাওলানা সাদ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি ফ্লাইটে দিল্লি ফিরে যাবেন। 

বৈঠকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, ধর্ম সচিব (ভারপ্রাপ্ত) আনিছুর রহমান, পুলিশের আইজিপি একেএম শহীদুল হক, র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন, পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান জাবেদ পাটওয়ারী, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মো. আছাদুজ্জামান মিয়া, কওমি মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা আশরাফ আলী, গুলশান আজাদ মসজিদের খতিব মাওলানা মাহমুদুল হাসান, আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ আবদুল্লাহ, বেফাকের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা আবদুল কুদ্দুস, মুফতি মিযানুর রহমান সাঈদ, জামিয়া রাহমানিয়ার মুহতামিম মুফতি মাহফুজুল হক, লালবাগ মাদ্রাসার মুফতি ফয়জুল্লাহ ও আফতাবনগর মাদ্রসার মুহতামিম মুফতি মোহাম্মদ আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। ছবি: বাংলানিউজছিলেন তাবলিগ শুরা সদস্য সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, মাওলানা আবদুল হামিদ মাসুম, খান মুহাম্মাদ শাহাবুদ্দীন নাসিম, মাওলানা জিয়া বিন কাসেম, ইউনুছ শিকদার, মাওলানা মোশাররফ হোসাইন ও আনওয়ার হোসাইনও। 

বুধবার (১০ জানুয়ারি) মাওলানা সাদ এর বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেওয়া ঠেকাতে বিমানবন্দর সড়কে বিক্ষোভ করেন তাবলিগ জামাতের একটি অংশ। ওইদিন থাই এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে ঢাকা আসেন তিনি। 

এরপর থেকেই আন্দোলন শুরু করে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার মধ্যে মাওলানা সাদকে দিল্লিতে ফেরত পাঠানোর দাবি করেন তাবলিগের মুসল্লিরা। বিক্ষোভ শুরু হয় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সামনে ও কাকরাইলে। 

এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) পক্ষ থেকে জানানো হয়, বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না ভারতের তাবলিগ জামাতের মুরব্বি মাওলানা সাদ কান্ধলভী। পরে বিকেলে এ বিষয়ে করণীয় নিয়ে বৈঠক হয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০১৮/আপডেট: ১৮২২ ঘণ্টা
এমআইএইচ/এমএইউ/এমএ 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa