পুতিনপন্থিদের কালো তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র
[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৫ ভাদ্র ১৪২৫, ২০ আগস্ট ২০১৮
bangla news

পুতিনপন্থিদের কালো তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০১-৩০ ৮:৪১:৫১ পিএম
বাঁ থেকে: বিশ্বসেরা ধনকুবের রোমান আব্রামোভিচ ও রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ ।ছবি- সংগৃহীত

বাঁ থেকে: বিশ্বসেরা ধনকুবের রোমান আব্রামোভিচ ও রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ ।ছবি- সংগৃহীত

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ অনুসারী প্রভাবশালী রাজনীতিক ও ধনকুবের অভিজাতদের একটি কালো তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের অংশ হিসেবেই এই কালো তালিকা প্রকাশ।

মার্কিন ও পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যমগুলো তালিকাকে ‘পুতিন-তালিকা’ নামেও অভিহিত করছে।

সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, সোমবার মার্কিন ট্রেজারি দপ্তরের পক্ষ থেকে প্রকাশিত তালিকায় খোদ রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভও রয়েছেন।

এই তালিকা প্রকাশের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

তিনি বলেছেন, মার্কিনিদের প্রকাশিত এই তালিকায় যাদের নাম আছে শুধু তাদেরকেই নয়, বরং গোটা রাশিয়ার জনগণকেই কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। এই অবন্ধুসুলভ বৈরিতার হীন মনোভাব দু’দেশের সম্পর্ককে জটিল থেকে আরো জটিল করে তুলবে। তবে আমরা চাই না পরিস্থিতির অবনতি হোক। বৈরিতা পথে না গিয়ে, এসব নিয়ে ভেবে সময় নষ্ট না করে আমরা বরং নিজেদের নিয়ে ব্যস্ত থাকবো এবং নিজেদের অর্থনীতির শ্রীবৃদ্ধির দিকে মনোনিবেশ করবো।

তালিকায় নিষিদ্ধ ২১০ জনের মধ্যে ১১৪ জন বর্ষীয়ান রুশ রাজনীতিক এবং ৯৬ জন অভিজাত ধনকুবের। বিশ্বের সেরা ধনকুবেরদের অন্যতম ইংলিশ ফুটবল ক্লাব চেলসির মালিক রোমান আব্রামোভিচের নামও রয়েছে এই কালো তালিকায়।

তালিকা প্রকাশকে সামনে রেখে প্রেসিডেন্ট পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেশকভ সোমবার এক আগাম প্রতিক্রিয়ায় বলেছিলেন, রাশিয়ায় অনুষ্ঠেয় ১৮ মার্চের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে প্রভাবিত করার পাঁয়তারা থেকেই নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ ও বিশিষ্ট রুশ নাগরিকদের কালো তালিকাভূক্ত করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

উল্লেখ্য, তার এই প্রতিক্রিয়া প্রকাশের ঘণ্টাকয়েকের মধ্যেই কালো তালিকাটি প্রকাশ করলো ট্রাম্প প্রশাসন। তালিকায় দিমিত্রি পেশকভের নিজের নামটিও রয়েছে।

কালো তালিকাভুক্তদের নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞার লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছে বলে রাশিয়া দাবি করলেও ট্রাম্প প্রকাশন বলছে, কালো তালিকাভুক্ত করা হলেও এই বিশিষ্ট অভিজাত ব্যক্তিরা নতুন নিষেধাজ্ঞার লক্ষ্যবস্তু নন। বরং এদেরকে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নানাবিধ অন্যায়ের পৃষ্ঠপোষক ও সুবিধাবাদী কুচক্রের অংশ হিসেবে দেখানো হয়েছে।  

তালিকায় যাদের নাম এসেছে তাদের বেশিরভাগই পুতিনের ঘনিষ্ট বন্ধু ও সহচর বলে বিবেচিত। এদের মধ্যে আরো আছেন রাশিয়ার কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বিভাগের (এফএসবি) প্রধান আলেকসান্দর বোর্তনিকোভ, বৈদেশিক গোয়েন্দা বিভাগের (এসভিআর) প্রধান সের্গেই নারিশকিন, বিশ্বের সবচেয়ে বড় জ্বালানি কোম্পানি বলে বিবেচিত গ্রাজপ্রম-এর প্রধান আলেক্সি মিলার, রোসনেত-প্রধান ইগর সেচিন, ব্যাংক রোসিয়ার মহাব্যবস্থাপক ইউরি কোভালচুক, পুতিনের জামাতা (পুতিনকন্যা কাতেরিনা তিখোনোভার বর) ধনকুবের কিরিল শামালভ, ইংলিশ ফুটবল ক্লাব আর্সেনালের মালিক আলিশের উসমানভ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১৮
জেএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa