[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭

bangla news

স্বাধীনতা ঘোষণা করেছেন কি-না, পুইগডেমন্টকে রাজয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১০-১১ ৫:৪৩:৩৭ পিএম
স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয়

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয়

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয় তার দেশের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল কাতালোনিয়ার প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুইগডেমন্টের কাছে জানতে চেয়েছেন, তারা স্বাধীনতা ঘোষণা করেছেন কি-না। রাজয় বলছেন, মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) পুইগডেমন্ট যে কথা বলেছেন, সেটা স্পষ্ট নয়। সেজন্য স্প্যানিশ সরকার কোনো নির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিতে পারছে না।

‘স্থগিত স্বাধীনতার’ ঘোষণা দিয়ে পুইগডেমন্টের ভাষণের পর  বুধবার (১১ অক্টোবর) স্পেন সরকারের করণীয় বিষয়ে আলোচনার জন্য ডাকা মন্ত্রিপরিষদের জরুরি বৈঠক শেষে রাজয় এ কথা বলেন।

কাতালান গণভোট নিয়ে পুইগডেমন্ট ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বিভ্রান্তি’ তৈরি করছেন অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা পরিষ্কার বক্তব্য চাই। তারা স্বাধীনতা ঘোষণা করেছেন কি-না। আমরা স্থিতিশীলতা পুনর্স্থাপন করতে চাই। স্পেন সরকার কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার আগে কাতালানদের অবস্থান স্পষ্ট হওয়া দরকার।

প্রধানমন্ত্রী ইঙ্গিত দেন, কাতালোনিয়ার ঘোষণা যদি ‘স্বাধীনতা’র হয়, তবে স্পেনের সংবিধানের ১৫৫ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী অঞ্চলটির স্বায়ত্তশাসন বাতিল করতে পারেন তিনি এবং সরাসরি মাদ্রিদের নিয়ন্ত্রণে পরিচালনা করতে পারেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) কার্লেস পুইগডেমন্ট স্বাধীনতার ঘোষণা করেন। কিন্তু সমঝোতার স্বার্থে তা কার্যকর স্থগিত থাকবে বলে জানান তিনি।

আঞ্চলিক রাজধানী বার্সেলোনায় কাতালোনিয়ার সংসদে দেওয়া ভাষণে পুইগডেমন্ট বলেন, জনগণ যেহেতু চাইছে, স্বায়ত্তশাসিত এ অঞ্চলের স্বাধীনতা লাভের অধিকার রয়েছে।

তিনি এসময় কাতালোনিয়াকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান। পুইগডেমন্ট জানান, তিনি এই ইস্যুতে উত্তেজনা প্রশমিতই রাখতে চান।

তার ‘স্থগিত স্বাধীনতা’ ঘোষণার পর বার্সেলোনাজুড়ে স্বাধীনতাকামীদের বর্ণাঢ্য র‌্যালি নামে। এসময় পুইগডেমন্ট সরকারের সাধুবাদে স্লোগান ওঠে শহরের রাস্তাজুড়ে। যদিও মাদ্রিদ সরকারের সমর্থকরা করেছেন বিরোধিতা।

কাতালান কর্মকর্তাদের ভাষ্য অনুযায়ী, গত ১ অক্টোবরের গণভোটে প্রায় ৯০ শতাংশ ভোটার স্পেন থেকে অঞ্চলটির বিচ্ছিন্নতার পক্ষে মত দিয়েছেন। কিন্তু গণভোটের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত তা প্রত্যাখ্যান করে আসছে মাদ্রিদ সরকার।

স্পেনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের ভূমধ্যসাগর তীরবর্তী প্রায় ২০ হাজার বর্গ কিলোমিটারের কাতালোনিয়ায় রয়েছে ৭৫ লাখ মানুষের বসবাস, যা স্পেনের মোট জনগণের ১৬ শতাংশ। স্পেন থেকে যা রফতানি হয়, তার ২৫ দশমিক ৬ শতাংশ রফতানি হয় এই অঞ্চল থেকে। স্প্যানিশ জিডিপিতে কাতালোনিয়ার অবদান ১৯ শতাংশ। স্পেনে বিদেশি বিনিয়োগের ২০ দশমিক ৭ শতাংশ যায় এই অঞ্চলে।

নিজস্ব ভাষা ও সংস্কৃতির কাতালানরা সর্বোচ্চ স্বায়ত্তশাসনের অধিকার ভোগ করলেও সাংবিধানিকভাবে পৃথক রাষ্ট্র হতে চায়। এখানকার আঞ্চলিক সরকার গত প্রায় পাঁচ বছর ধরেই আলাদা রাষ্ট্র গঠনের চাপ হজম করছে জনগণের। ২০১৫ সালের আঞ্চলিক নির্বাচনে স্বাধীনতাকামী দল বিজয়ী হলে এই চাপ আরও স্পষ্ট হয়।

তবে স্বাধীনতার দাবিতে কাতালানরা সরব হওয়ার পর থেকেই বিরোধিতা করে আসছে স্প্যানিশরা। এই বিরোধিতার মধ্যেই ২০১৪ সালে কাতালানরা পরীক্ষামূলক গণভোট করলে তার ফলাফলকে উড়িয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী রাজয়। তিনি সেসময় বৈধ উপায়ে গণভোট আয়োজনের আবদারও না মানার কথা স্পষ্ট জানিয়ে দেন। এরপরও গণভোট করে কাতালানদের এই তৎপরতা শেষ পর্যন্ত ‘ফল’ পাবে কি-না, তা নিয়ে অপেক্ষায় বিশ্ব সংবাদমাধ্যম।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১১, ২০১৭
এইচএ/

** স্বাধীনতার ঘোষণা নয়, আলোচনা চাইলেন কাতালান প্রেসিডেন্ট
** কাতালানদের স্বাধীনতা ঘোষণায় কাজ হবে না

** গণঐক্যের আহ্বানে স্পেনজুড়ে র‌্যালির পরিকল্পনা
** আহত কাতালানদের কাছে স্পেন সরকারের দুঃখ প্রকাশ
** স্বাধীনতা ঘোষণা রুখতে কাতালান সংসদ অধিবেশনে স্থগিতাদেশ
** স্পেনের রাজার সমালোচনায় কাতালান প্রেসিডেন্ট
** ক’দিনের মধ্যেই স্বাধীনতা ঘোষণা করবে কাতালোনিয়া?
** ‘স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের অধিকার জিতে গেছে কাতালানরা’
** কাতালোনিয়ায় সংঘর্ষে আহত ৭৬১, ধর্মঘটের ডাক
** কাতালোনিয়ায় গণভোট নিয়ে সংঘর্ষে আহত তিন শতাধিক
** কাতালানদের স্বাধীনতার গণভোট রোববার, বার্সেলোনায় র‌্যালি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Alexa