[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫, ২৬ এপ্রিল ২০১৮

bangla news

ইন্টারনেট-মোবাইল সেটে কর প্রত্যাহারের প্রস্তাব

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৪-১৬ ৫:৫৪:৫৩ পিএম
এনবিআরের সম্মেলন কক্ষে প্রাক-বাজেট আলোচনা

এনবিআরের সম্মেলন কক্ষে প্রাক-বাজেট আলোচনা

ঢাকা: মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর আরোপিত ২১ দশমিক ৭৫ শতাংশ (ভ্যাট, এসডি ও সারচার্জ) কর প্রত্যাহারের প্রস্তাব দিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস অব বাংলাদেশের (অ্যামটব)।

সোমবার (১৬ এপ্রিল) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলনকক্ষে প্রাক-বাজেট আলোচনায় এনবিআরকে এ প্রস্তাব দেন অ্যামটব নেতারা।

এসময় আমদানি করা ফোর-জি মোবাইল সেটের ওপর থেকে কর প্রত্যাহারের প্রস্তাব দেন সংগঠনটির নেতারা। 

অ্যামটব মহাসচিব টি আই এম নুরুল কবীর বলেন, মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর আরোপিত করের হার কমানো গেলে দেশে ইন্টারনেট ব্যবহার বাড়বে। নতুন নতুন কোম্পানি গড়ে উঠবে। সরকার সেখান থেকে কর পাবে।

তিনি বলেন, দেশে বর্তমানে ১৭ থেকে ১৮টি কোম্পানি মোবাইল সেট তৈরির জন্য কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু মোবাইল সেট উৎপাদন শুরু করতে কোম্পানিগুলোর আরো অন্তত ২ থেকে ৩ বছর সময় লাগবে। এই সময়ে সাধারণ মানুষকে ফোর-জি সেবা দিতে ফোর-জি সাপোর্ট করে এমন সেট আমদানির সুযোগ দেন।

এই দুটি প্রস্তাবের পাশাপাশি দ্বৈতকর পরিহার, মোবাইল ফোনের সর্বনিম্ন কর দশমিক ৭৫ করা এবং ব্যাংক, বিমা কোম্পানির মতোই মোবইল টেলিফোন বিল উৎসে করের আওতামুক্ত রাখাসহ মোট ১৯টি প্রস্তাব দেয় সংগঠনটি।

তাদের এ প্রস্তাবের পরিপ্রেক্ষিতে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, আমরা আপনাদের প্রস্তাবগুলো দেখছি, যৌক্তিকতা বিবেচনা করছি। কিন্তু আপনারা এনবিআরে বকেয়া পাওনাগুলো পরিশোধ করুন। ভ্যাট ও ট্যাক্স বাবদ আপনাদের কাছে অনেক পাওনা রয়েছে।

এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশারফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে সম্মেলনকক্ষে অ্যামটব নেতারা, এনবিআরের কমিশনার ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৬, ২০১৮
এমএফআই/ওএইচ/জেএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa