[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৯ আষাঢ় ১৪২৫, ২৩ জুন ২০১৮

bangla news

রোগী-চিকিৎসকের সুরক্ষায় শিগগির আইন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-০৪ ৭:৫৭:০১ পিএম
বক্তব্য রাখছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: শাকিল আহমেদ

বক্তব্য রাখছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: রোগী ও চিকিৎসকের সুরক্ষায় নতুন আইন শিগগিরই প্রণয়ন করা হবে। এ আইনের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবার মান আরও উন্নত ও যুগোপযোগী করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

রোববার (৪ মার্চ) বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) কনফারেন্স হলে বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টাস ফোরাম ও বিএমএ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, রোগীদের সেবায় অনেক সময় বিভিন্ন রকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে যায়। এসব ঘটনার জন্য কখনও রোগী আবার কখনও চিকিৎসক নিজে দায়ী থাকেন। এই সমস্যা সমাধানে কোনো আইন এখন পর্যন্ত প্রণয়ন করা হয়নি। আমাদের কাজ প্রক্রিয়াধীন। শিগগিরই আমরা এ আইন প্রণয়ন করতে পারবো। আর আইনের প্রয়োগও সঠিক থাকবে।

স্বাস্থ্যখাতে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেলেও অনেক সীমাবদ্ধতা আছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, উন্নতি আমাদের হচ্ছে কিন্তু আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতাও রয়েছে। ছোট রকমের ভুল থাকলেও আমাদের বড় ধরনের কোনো ক্ষতি বা ভুল সংঘটিত হয়নি। আমাদের এই সীমাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে শুধুমাত্র লোকবলের অভাবে। আমরা জনবল বাড়ানো কাজ করছি। এর আগে আমরা ছয় হাজার চিকিৎসক নিয়েছি। নিযোগপ্রাপ্তরা গ্রামে কাজ করছেন। এখন আমাদের লক্ষ্য আগামী নির্বাচনের আগেই ১০ হাজার নতুন চিকিৎসক নিয়োগ দেবো। যার মধ্যে পাঁচ হাজার স্পেশাল বিসিএসের মাধ্যমে আসবে। বাকি পাঁচ হাজার আমাদের শাসনকাল শেষ হওয়ার আগেই নিয়োগ পাবে। এছাড়া নার্সের অভাব না থাকা সত্ত্বেও এই খাতের উন্নতিকল্পে আরও চার হাজার নার্স নিয়োগ দেওয়া হবে।

অ্যাম্বুলেন্স দেওয়ার পরও অ্যাম্বুলেন্সের সংকট সৃষ্টি হচ্ছে উল্লেখ করে নাসিম বলেন, আমরা সারা দেশে অনেক অ্যাম্বুলেন্স দিয়েছি কিন্তু তাও সমস্যা সমাধান হচ্ছে না। কারণ যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে অনেক অ্যাম্বুলেন্স নষ্ট হচ্ছে। বাজেটের অভাবে গাড়িগুলো ঠিকও হচ্ছে না। তাই আমরা হাসপাতালের অধীনে একটি ফান্ড করবো শিগগিরই।

বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি তৌফিক মারুফের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমান, বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা কামাল, ডা. এহতেশামুল হক, ডা. জামাল উদ্দীন চৌধুরী, ডা. সোহেল মাহমুদ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৬ ঘণ্টা, মার্চ ৪, ২০১৮
এমএএম/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa