[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫, ২২ জুলাই ২০১৮

bangla news

আমি মানুষের সু-বুদ্ধির জাগরণ চাই: দীপনের বাবা

1261 |
আপডেট: ২০১৫-১১-০১ ১:০০:০০ পিএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক-মালিক নিহত ফয়সাল আরেফিন দীপনের বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক ড. আবুল কাসেম ফজলুল হক বলেছেন, আমি বিচার চাই না, গতকাল আমি এই কথাটি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলিনি। আমার একটি বিচার বিবেচনা আছে। সেই অনুযায়ী বলেছি।

ঢাকা: জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক-মালিক নিহত ফয়সাল আরেফিন দীপনের বাবা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক ড. আবুল কাসেম ফজলুল হক বলেছেন, আমি বিচার চাই না, গতকাল আমি এই কথাটি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলিনি। আমার একটি বিচার বিবেচনা আছে। সেই অনুযায়ী বলেছি।

যদি দেশের ভেতর শুভবুদ্ধির উদয় হয় তাহলেই সমস্যার সমাধান হতে পারে। বিচার দিয়ে, আইন দিয়ে আমরা একজনকে শাস্তি দিতে পারি। কিন্তু জাতির উন্নয়ন দরকার। এজন্যই আমি গতকালকে এই কথাটি বলেছি।

রোববার (১ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ছেলের মরদেহ নিতে এসে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন।
 
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। নিয়ম অনুযায়ী মামলা করবো। ঢাবি কর্তৃপক্ষ আমাকে একটা আবেদন লিখে দিতে বলেছে, সেটা আজ না হয় কাল দিবো। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, আমি এইটার উপর নির্ভর করি। আমি মানুষের সুবুদ্ধির জাগরণ চাই।

এসময় সেখানে থাকা তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, জঙ্গির তৎপরতা এতটা খারাপ রূপ নিতে পারতো না। যদি রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতা না থাকতো। বিএনপির নেত্রী খালেদা জিয়া এই ব্যাপারে নিরবতা পালন করে তাদেরকে প্রশ্রয় দিচ্ছেন।

শনিবার রাজধানীর শাহবাগে কুপিয়ে হত্যা করা হয় জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক-মালিক ফয়সাল আরেফিন দীপনকে। শাহবাগের আজিজ মার্কেটের তৃতীয় তলায় জাগৃতির অফিস থেকে সন্ধ্যায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ০১, ২০১৫
এজেডএস/এমআইকে/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa