জলকেলিতে মাতোয়ারা রাখাইন তরুণ-তরুণীরা
[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ ভাদ্র ১৪২৫, ১৬ আগস্ট ২০১৮
bangla news

জলকেলিতে মাতোয়ারা রাখাইন তরুণ-তরুণীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৪-১৮ ৮:২২:৩১ পিএম
জলকেলি উৎসবে যোগ দিয়েছেন একদল রাখাইন তরুণ-তরুণী। ছবি: বাংলানিউজ

জলকেলি উৎসবে যোগ দিয়েছেন একদল রাখাইন তরুণ-তরুণী। ছবি: বাংলানিউজ

কক্সবাজার: সকাল থেকে ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে নাচ-গান আর হৈ-হুল্লোড়ে মেতে ছিলেন রাখাইন তরুণরা। দুপুর গড়িয়ে বিকেল হতেই ডাক-ঢোলের তালে তালে তারা ছুটে গেলেন মাঠের প্যান্ডেলের দিকে। সেখানে আগে থেকেই রঙিন পোশাকে পানির ড্রাম নিয়ে অপেক্ষায় ছিলেন তরুণীর দল। প্যান্ডেলে প্রবেশ করতেই পানি ছিটিয়ে বরণ করে নেওয়া হয় আগতদের।

বুধবার (১৮ এপ্রিল) রাখাইন সম্প্রদায়ের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ‘সাংগ্রেং পোয়ে’ বা জলকেলি উৎসবের দ্বিতীয় দিন এমন দৃশ্যই চোখে পড়ল।

মূলত রাখাইন নববর্ষ উপলক্ষে জলকেলি উৎসবের আয়োজন করা হয়। এবারে ‘রাখাইন বর্ষ ১৩৮০’ বরণের জন্য কক্সবাজার শহরে ৭টি এবং চকরিয়ার হারবাং, রামু, খুরুশকুল, চৌফলদণ্ডি, মহেশখালীসহ মোট ১৬টি প্যান্ডেলে জলকেলি উৎসবের আয়োজন করা হয়।

এ বিষয়ে চাউলবাজারের বাসিন্দা মংছেং রাখাইন বলেন, জলকেলি উৎসব আমাদের সভ্যতা ও সংস্কৃতির অংশ। আমরা মনে করি জলের সংস্পর্শে আমরা পূর্ণ হচ্ছি। 

টেকপাড়ার রাখাইন তরুণী ছেনু মং বলেন, এটি আমাদের সবচেয়ে বড় উৎসব, বাঁধনহীন উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠার উৎসব।

উৎসব উপলক্ষে শহরের ফুলবাগ সড়ক, টেকপাড়া, মাছ বাজার রাখাইন পাড়া, হাঙ্গর পাড়া বৌদ্ধ মন্দির সড়ক ও মোহাজের পাড়ার তরুণ-তরুণীদের মধ্যে বইছে পানি ছিটানোর উন্মাদনা। রংবেরঙের নতুন পোশাক পরিধান করে গানের তালে নেচে পানি ছিটিয়ে গেল বছরের পাপ পঙ্কিলতা দূর করার প্রয়াসে রাখাইনরা ছুটছেন এক গ্রাম থেকে আরেক গ্রামে। প্রতিটি পাড়ায় আগতদের স্বাগত জানাতে তৈরি করা হয়েছে প্যান্ডেল। 

রাখাইন তরুণ মং ছিন বলেন, বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) শেষ হবে বর্ষবরণের এ উৎসব। শেষ দিনে আমরা একে অপরকে ছোট ছোট উপহার দেই।  

রাখাইন ডেভেলপমেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি  অধ্যক্ষ ক্যথিং অং বলেন, বছরের প্রথম অনুষ্ঠান জলকেলি। প্রতিবার এ উৎসবের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় থাকি। তাই এটি পালনে আমরা একটু বেশিই মজা করি।

এদিকে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরাজুল হক টুটুল বলেন, রাখাইনরা যেন নির্বিঘ্নে এ ধর্মীয় উৎসবটি পালন করতে পারেন সেজন্য পুলিশ সতর্ক রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৮
টিটি/এনএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa