[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ আষাঢ় ১৪২৫, ২১ জুন ২০১৮

bangla news
ইতিহাসের এই দিনে

সুবোধ ঘোষ ও নীলুফার ইয়াসমীনের প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-১০ ১২:০৭:৩০ এএম
সুবোধ ঘোষ ও নীলুফার ইয়াসমিন

সুবোধ ঘোষ ও নীলুফার ইয়াসমিন

ঢাকা: ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

১০ মার্চ ২০১৮, শনিবার। ২৬ ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
•    ১৫৮৫ - সম্রাট আকবরের ফরমান জারিতে আমির ফতেহউল্লাহ সিরাজী উদ্ভাবিত বাংলা ফসলী সন প্রবর্তিত হয়। এ সনই বর্তমানে প্রচলিত বাংলা সন।
•    ১৬২৪ - ফ্রান্সের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে ইংল্যান্ড।
•    ১৯৪২ – দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে রেঙ্গুন দখল করে নেয় জাপানিরা।
•    ১৯৫৬ - বৈমানিক পিটার টুইস প্রথম মানব, যিনি ঘণ্টায় ১০০০ মাইল বেগে প্লেন চালান।
•    ১৯৬৯ - মার্টিন লুথার কিংয়ের হত্যাকারী জেমস আর্ল রে-কে যুক্তরাষ্ট্রের মেফিস আদালত ৯৯ বছরের সাজা প্রদান করেন।
•    ১৯৭১ - ভারতের ইন্দিরা গান্ধীর নেতৃত্বাধীন ভারতের কংগ্রেস পার্টি সাধারণ নির্বাচনে ব্যাপক বিজয় লাভ করে।

জন্ম
•    ১৬২৮ - মার্সিলো মালপেগেই, ইতালির চিকিৎসক এবং জীববিজ্ঞানী।
•    ১৭৭২ - ফ্রিড্‌রিশ ফন শ্লেগেল, জার্মান কবি।
•    ১৮১০ - স্যামুয়েল ফার্গুসন, আইরিশ কবি।
•    ১৮৭৩ - ইয়াকপ ওয়াসায়মান, জার্মান ঔপন্যাসিক।
•    ১৯৩৬ - সেপ ব্ল্যাটার, ফিফার ৮ম প্রেসিডেন্ট।

মৃত্যু
•    ১৮৭২ - মাতসিনি, ইতালিয়ান জাতীয়তাবাদী নেতা।
•    ১৯৪০ - মিখাইল বুলগাকভ, রুশ নাট্যকার ও ঔপন্যাসিক।
•    ১৯৬৬ - ফ্রাঙ্ক ও’কনার, আইরিশ গল্পকার।
•    ১৯৮০ - সুবোধ ঘোষ, বাঙালি কথাসাহিত্যিক। তিনি বিহারের হাজারীবাগে ১৯০৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন। প্রত্নতত্ত্ব, পুরাতত্ত্ব, এমনকি সামরিক বিদ্যায়ও তার যথেষ্ট দক্ষতা ছিল। বাংলা সাহিত্যাঙ্গনে একটু বেশি বয়সে নাম লিখেও মেধা মনন চিন্তা চেতনা আর লব্ধ অভিজ্ঞতার আলোকে সুবোধ ঘোষ তার অসাধারণ রচনা সম্ভাবের মাধ্যমে নিজেকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হন। তার রচিত ‘অযান্ত্রিক’ এবং ‘ফসিল’ বাংলা সাহিত্যের দু’টি যুগান্তকারী গল্প। তার আরেকটি বিখ্যাত গল্প ‘থির বিজুরি’। ১৯৮০ সালের ১০ মার্চ তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
•    ১৯৮৩ - আতিকুজ্জামান খান, বাংলাদেশি কূটনীতিক, সাংবাদিক এবং ধারাভাষ্যকার।
•    ২০০৩ - নীলুফার ইয়াসমীন, বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী। ১৯৪৮ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি (মতান্তরে ১৩ ফেব্রুয়ারি) কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। মায়ের কাছে নীলুফার ইয়াসমিনের সঙ্গীতে হাতেখড়ি। বাংলাদেশ বেতারের ছোটদের অনুষ্ঠান খেলাঘরের মাধ্যমে শিল্পীজীবন শুরু করেন তিনি। পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ টেলিভিশনের শুরু থেকে আমৃত্যু একজন নিয়মিত শিল্পী হিসেবে গান গেয়েছেন। নীলুফার ইয়াসমিন উচ্চাঙ্গ, নজরুল, অতুলপ্রসাদ, দ্বিজেন্দ্রলাল, রজনীকান্ত, টপ্পা, ঠুমরি, কীর্তন, রাগপ্রধান, আধুনিক গানসহ গানের ভুবনের প্রায় সবগুলো শাখাতেই অবাধ বিচরণ করেছেন। রাগপ্রধান গানে অসাধারণ দখল থাকলেও তিনি নজরুলশিল্পী হিসেবেই বেশি পরিচিত। প্রখ্যাত গীতিকার, সুরকার, শিল্পী ও অভিনেতা খান আতাউর রহমানের সঙ্গে ১৯৬৯ সালে তিনি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। ২০০৩ সালের ১০ মার্চ বারডেম হাসপাতালে তিনি সবাইকে শোকের সাগরে ভাসিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। সঙ্গীত বিষয়ে অনন্য অবদানের জন্য ২০০৪ সালে মরণোত্তর রাষ্ট্রীয় একুশে পদক এবং নজরুল সঙ্গীতে অবদানের জন্য নজরুল পদকসহ অসংখ্য পুরস্কার ও সম্মাননা অর্জন করেন নীলুফার ইয়াসমিন।

বাংলাদেশ সময়: ০০০৫ ঘণ্টা, মার্চ ১০, ২০১৮
এনএইচটি/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa