[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জুলাই ২০১৮

bangla news
ঈদ স্পেশাল

লুকিয়ে দর্শক প্রতিক্রিয়া জানছেন বুবলী

মো. জহিরুল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-১৮ ৬:৩৫:০৫ পিএম
শবনম বুবলী। ছবি: বাংলানিউজ

শবনম বুবলী। ছবি: বাংলানিউজ

পর পর তিন বছর ধরে ঈদে দুইটি করে সিনেমা মুক্তি পেয়েছে চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর। প্রতিটি সিনেমাতেই তার সহশিল্পী ছিলেন শাকিব খান। এই ঈদে বুবলী অভিনীত ‘চিটাগাংইয়া পোয়া, নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ ও ‘সুপার হিরো’ সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। প্রেক্ষাগৃহে দুইটি সিনেমাই বেশ ভালো দর্শক পাচ্ছে।

সিনেমা দুইটি নিয়ে বাংলানিউজের সঙ্গে কথা বলেছেন শবনম বুবলী।

বাংলানিউজ: ঈদ কেমন কাটলো?
বুবলী:
আলহামদুলিল্লাহ্‌ অনেক ভালো কেটেছে। পরিবারের সঙ্গে ঈদ করেছি। তবে যেহেতু সিনেমা মুক্তি পেয়েছে তাই একটু টেনশনে ছিলাম।

বাংলানিউজ: এবারের ঈদে আপনার দুইটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে কোনটি দেখেছেন?
বুবলী:
একটি সিনেমা দেখেছি। আরেকটি সিনেমা আগামীকাল দেখবো। প্রেক্ষাগৃহে বোরকা পরে সিনেমা দেখতে গিয়েছিলাম। যাতে কেউ আমাকে চিনতে না পারেন। লুকিয়ে দর্শক প্রতিক্রিয়া জানার চেষ্টা করেছি।

বাংলানিউজ: দর্শক রেসপন্স কেমন পাচ্ছেন?
বুবলী:
অনেক ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। ঈদের দিন থেকে অনেকে কল করছেন। সিনেমার প্রশংসা করছেন। খবর পাচ্ছি অনেক দর্শক প্রেক্ষাগৃহে ব্ল্যাকে টিকিট কিনে সিনেমা দেখছেন। দর্শকদের এতো আগ্রহ দেখে আমি সত্যি অনেক আনন্দিত ও কৃতজ্ঞ। 

বাংলানিউজ: অনেক শিল্পীকে দেখা যায় সিনেমা মুক্তির সময় প্রেক্ষাগৃহে ঘুরে ঘুরে প্রচারণা চালাতে। কিন্তু আপনাকে দেখা যায় না কেনো?
বুবলী:
শিল্পীদের প্রেক্ষাগৃহে যাওয়াটা খুব ভালো একটি বিষয়। যারা প্রেক্ষাগৃহে যান, তাদের আমি সম্মান জানাই। তবে আমার মনে হয় শো চলার সময় প্রেক্ষাগৃহে যদি যাই, তখন দর্শক সিনেমা দেখা বাদ দিয়ে আমাদের নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পরবেন। এতে সিনেমা দেখা থেকে তাদের মনোযোগ নষ্ট হতে পারে। তাই আমি চাই দর্শক সিনেমাটি ভালোভাবে দেখুক এবং উপভোগ করুক। ‘চিটাগাংইয়া পোয়া, নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ ও ‘সুপার হিরো’ সিনেমার পোস্টারবাংলানিউজ: ঈদে মুক্তি প্রাপ্ত আপনার দুটি সিনেমার মধ্যে কোনটিকে বেশি এগিয়ে রাখবেন?
বুবলী:
‘চিটাগাংইয়া পোয়া, নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ এক ধরনের সিনেমা আর ‘সুপার হিরো’ আরেক ধরনের সিনেমা। আমি দুইটি সিনেমার মধ্যে পার্থক্য করতে পারবো না। দুইটিই আমার কাছে সমান। ‘চিটাগাংইয়া পোয়া, নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ পুরো কমেডি ধাঁচের সিনেমা। এটি দর্শকদের হাসাচ্ছে। ‘সুপার হিরো’ ভিন্ন ধরনের একটি কনসেপ্ট নিয়ে নির্মিত। এটি দর্শককে নতুন স্বাদ দিচ্ছে।

বাংলানিউজ: ঈদ ছাড়া আপনার সিনেমা মুক্তি পেতে দেখা যায় না কেনো?
বুবলী:
আমি চাই সারা বছরই আমার সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাক। কিন্তু কাকতালীয়ভাবে পরপর তিন বছর আমার সিনেমা শুধু ঈদেই মুক্তি পেয়েছে। এজন্য অনেকে আমাকে ‘উৎসব কন্যা’ও বলেন। কারণ আমার সিনেমা শুধু উৎসবকে কেন্দ্র করেই মুক্তি পায়। আসলে যখন সিনেমায় কাজ করি তখন তো এটা মাথায় থাকে না যে সিনেমাটি ঈদে মুক্তি পাবে। কিন্তু পরবর্তীতে দেখা যায় নির্মাতারা ঈদে সিনেমাগুলো মুক্তি দিয়েছেন। তিন বছর ধরে এমনটিই হয়ে আসছে।

বাংলানিউজ: দুইটি সিনেমার কোনওটি নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য পেয়েছেন?
বুবলী:
আলহামদুলিল্লাহ্‌ এখন পর্যন্ত সিনেমা নিয়ে নেতিবাচক কোনও মন্তব্য শুনতে পাইনি। সবাই ইতিবাচক মন্তব্যই করছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতেও তাই দেখছি।

বাংলানিউজ: ‘চিটাগাংইয়া পোয়া, নোয়াখাইল্লা মাইয়া’ ছবিতে আপনি নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষায় ডায়লগ বলেছেন। আগে থেকেই এ আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলতে পারতেন?
বুবলী:
আমার গ্রামের বাড়ি নোয়াখালীতে। তবে আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলতে আমি অভ্যস্ত ছিলাম না। এই সিনেমাটির জন্য আমাকে বেশ কিছুদিন ধরে ভাষাটি রপ্ত করতে হয়েছে। বিষয়টি আমিও বেশ উপভোগ করেছি।

বাংলানিউজ: এখন হাতে কি কি সিনেমা আছে?
বুবলী:
একটি সিনেমাতেই এখন শুধু কাজ করছি। সেটা হচ্ছে ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘ক্যাপ্টেন খান’। এতে আমার সহশিল্পী শাকিব খান। দারুণ একটি সিনেমা হতে যাচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যে এর কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা। কোরবানির ঈদে ‘ক্যাপ্টেন খান’ মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩২ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০১৮
জেআইএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa