[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭

bangla news

অপুর সঙ্গে আমার প্রেম কীভাবে সম্ভব?

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১২-০৫ ৪:১৬:৩৯ পিএম
বাপ্পি ও অপু, সম্প্রতি একটি ফটোশ্যুটে

বাপ্পি ও অপু, সম্প্রতি একটি ফটোশ্যুটে

শাকিব-অপুর ‘ডিভোর্স’ এখন টক অব দ্য কান্ট্রি।

সোমবার (০৪ ডিসেম্বর) এই তারকা দম্পতির ডিভোর্সের খবর ইন্ডাস্ট্রিতে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় তোলে। ডিভোর্সের কারণ হিসেবে এক একজনের এক এক মত।

অপুকে ডিভোর্স লেটার পাঠানোর পেছনে শাকিব বেশ কিছু কারণ দেখিয়েছেন। এর একটি হচ্ছে, একমাত্র সন্তান আব্রাম খান জয়কে তালাবদ্ধ রেখে ‘বয়ফ্রেন্ড’ নিয়ে অপু কলকাতায় গেছেন! কিংবা কারো একজনের সঙ্গে অবশ্যই গেছেন। তিনি কে? বয়ফ্রেন্ড হলে কে তিনি? এর বেশি তার কোনো তথ্য দেননি কিংখান।

তবে চলচ্চিত্রপাড়ায় গুঞ্জন, অপুর বয়ফ্রেন্ড হিসেবে শাকিব ইঙ্গিত করেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরীর দিকে। এর আগেও অপুর সঙ্গে বাপ্পি প্রেম করছেন এমন খবরও রটেছে।

বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার (০৫ ডিসেম্বর) বাংলানিউজকে ‘অনেক সাধের ময়না’ খ্যাত এই তরুণ নায়ক বলেন, অপু দিদি ও আমাকে জড়িয়ে একটা মহল উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এইসব কথা রটাচ্ছেন। যেটা একেবারে ভিত্তিহীন।

অপুর সঙ্গে তার সম্পর্ক প্রসঙ্গে বাপ্পি বলেন, তাকে আমি সবসময় ‘অপু দি’ বলে ডাকি। তিনি আমার বোনের মতো। তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক ভাই-বোনের। তাকে আমি সম্মান করি। তার সঙ্গে প্রেম কীভাবে সম্ভব? আমাকে এবং তাকে নিয়ে যেসব কথা রটছে তা শুনে আমি খুব বিব্রত। এই ইস্যু নিয়ে কথা বলতেও আমার ইচ্ছে করছে না।

বাপ্পির এমন কথা এখন নতুন প্রশ্নের জন্ম দিলো। তাহলে শাকিব অপুর বয়ফ্রেন্ড হিসেবে কাকে ইঙ্গিত করলেন? যদি সে বাপ্পি না হয় তাহলে কি শাকিবের ধারণা ভুল ছিল? নাকি সে ব্যক্তি অন্য কেউ?  

প্রসঙ্গত, কয়েকমাস আগে একটি ফটোশ্যুটে প্রথম অপু-বাপ্পি একসঙ্গে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান। এছাড়াও ‘কাঙ্গাল’ ছবিতে তাদের একসঙ্গে কাজ করার কথা থাকলেও কেউই ছবিটি না করার ঘোষণা দেন।

ইতোপূর্বে বাপ্পির সঙ্গে বিদ্যা সিনহা মিমের প্রেম সম্পর্কের কথা ছড়িয়েছিল।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৭
জেআইএম/আইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Alexa