[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৮ জুলাই ২০১৮

bangla news

তিন কার্যদিবস পর পুঁজিবাজারে মূল্য সংশোধন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৭-০৯ ৪:২১:১৩ পিএম
ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লোগো

ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ লোগো

ঢাকা: টানা তিন কার্যদিবস উত্থানের পর সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার (০৯ জুলাই) দেশের পুঁজিবাজারে সূচক পতন হয়েছে। এদিন সূচকের পাশাপাশি কমেছে বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম। তবে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ।

আগের দিনের মতোই সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে এদিন সকাল সাড়ে ১০টায় ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয়। লেনদেন শুরুর মাত্র সাত মিনিটে সূচক বাড়ে ২০ পয়েন্ট। এরপর শেয়ার বিক্রির চাপে শুরু হয় সূচকের ওঠানামা, যা অব্যাহত ছিলো দিনের লেনদেনের শেষ সময় পর্যন্ত।

দিন শেষে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক কমেছে ২৪ পয়েন্ট। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক কমেছে ৩৪ পয়েন্ট। এর ফলে বুধ, বৃহস্পতি এবং বোরবার টানা তিন কার্যদিবস সূচক বৃদ্ধির পর সোমবার পুঁজিবাজারে দরপতন হলো।

বাজারের এই অবস্থানকে মূল্য সংশোধন মনে করেছেন সংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, উত্থান-পতন হচ্ছে পুঁজিবাজারের স্বাভাবিক নিয়ম। তিনদিন সূচকের উত্থানের পর সোমবার বিনিয়োগকারীরা প্রফিট টেকিং করেছেন। ফলে সূচক কমছে। এটা দরপতন না, মূল্য সংশোধন।

এদিকে বোরবারের মতোই সোমবারও ব্যাংক, বিমাসহ বেশিরভাগ খাতের কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে, ফলে দরপতন হয়েছে। অন্যদিকে আগের দিনের মতোই টেলিকমিউনিকেশন খাতের গ্রামীণফোন, ওষুধখাতের স্কয়ার ফার্মাসহ কয়েকটি বড় কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে। ফলে বড় ধরনের সূচক পতন থেকে রক্ষা পেয়েছে দেশের পুঁজিবাজার।

ডিএসই’র তথ্য মতে, সোমবার ২৩ কোটি ২৪ লাখ ৭০৭টি সিকিউরিটিজের হাত বদল হয়েছে। এতে লেনদেন হয়েছে ৯০১ কোটি ২৬ লাখ ২৮ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৮৯২ কোটি ৪৯ লাখ ৫২ হাজার টাকার। তার আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিলো ৯০২ কোটি ৮৩ লাখ ৪৩ হাজার টাকা।

ডিএসই’র তিন সূচকের মধ্যে প্রধান সূচক (ব্রড ইনডেক্স) আগের দিনের চেয়ে ২৪ দশমিক ৭৪ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৩৪১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। পাশাপাশি ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১৮ দশমিক ৩৫ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৯১০ পয়েন্টে এবং শরীয়াহ্ সূচক ১ দশমিক ০৩ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৬৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪১টির, কমেছে ১৬৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির।

এদিকে সিএসই’র সার্বিক সূচক আগের দিনের চেয়ে ৩৪ দশমিক ১৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ৯৫৮ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৪ কোটি ১২ লাখ ৫৯ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিলো ৪৪ কোটি ৯৪ লাখ ৩৪ হাজার ৯৭০ টাকা। 

লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১০২টির, কমেছে ১২১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টির।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২০ ঘণ্টা, জুলাই ০৯, ২০১৮
এমএফআই/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa