[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩০ কার্তিক ১৪২৪, ১৪ নভেম্বর ২০১৭

bangla news

ভয় কেটেছে বিনিয়োগকারীদের, পুঁজি বেড়েছে ৩০০০ কোটি টাকা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৭-২৮ ১০:৪৪:৪৬ এএম
ডিএসই-সিএসই লোগো

ডিএসই-সিএসই লোগো

ঢাকা: তিন কার্যদিবস উত্থান আর দুই কার্যদিবস সূচক পতনের মধ্যদিয়ে আরো একটি সপ্তাহ পার করলো দেশের পুঁজিবাজার। আলোচিত এ সপ্তাহে উভয় বাজারে বেড়েছে সূচক, বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম ও বাজার মূলধন। তবে কমেছে লেনদেনের পারিমাণ।

বাজ‍ার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসের মুদ্রানীতির ঘোষণাকে কেন্দ্র করে গত সপ্তাহ লেনদেন কম হয়েছে। বিনিয়োগকারীদের মনে প্রশ্ন ছিলো আসন্ন মুদ্রানীতি পুঁজিবাজার বান্ধব হবে কি না? একই সঙ্গে ছিলো ভয়ও।

কিন্তু বুধবার (২৬ জুলাই) বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর মুদ্রানীতি ঘোষণার পর বিনিয়োগকারীদের সেই ভয় কেটেছে। ফলে সর্বশেষ দুই কার্যদিবস ক্রমাগতভাবে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ।

এতে বিনিয়োগকারীদের পুঁজি বেড়েছে ৩ হাজার ৩৪ কোটি ৫৩  লাখ ৭৭ হাজার ৫৭৬ টাকা।

ডিএসই’র তথ্য মতে, বিদায়ী সপ্তাহে (২৩-১৭জুলাই) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন হয়েছে ৩ হাজার ১১৭ কোটি ৪১ লাখ ৪৬ হাজার ৩২৩ টাকা। যা আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩৮ দশমিক ৬৪ শতাংশ কম।

এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিলো ৫ হাজার ৭৯ কোটি ৫২ লাখ ৯৯ হাজার ৮৩৫ টাকার।
এর মধ্যে ‘এ’ ক্যাটাগরির শেয়ারের লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৮৬৫ কোটি ৬২ লাখ ১৬ হাজার ৩২৩ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিলো ৪ হাজার ৭৫২ কোটি ২ লাখ ৮৪ হাজার ৮৩৫ টাকা।

গত সপ্তাহে যা দৈনিক গড় লেনদেন ছিলো ৬২৩ কোটি ৪৮ লাখ ২৯ হাজার ২৬৫ টাকা। এর আগের সপ্তাহের দৈনিক গড় লেনদেন ছিলো ১ হাজার ১৫কোটি ৯০ ‍লাখ ৫৯ হাজার ৯৬৭ টাকা।

লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮৬টির, কমেছে ১১৮টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছিলো ১১৬টির, কমেছিলো ২০০টির আর অপরিবর্তিত ছিলো ১৭ কোম্পানির শেয়ারের দাম।

‍গত সপ্তাহে তিন সূচকের পথ চলা ডিএসইর প্রধান সূচক ‘ডিএসই‌এক্স’ আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩২ দশমিক ৬০পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৮১৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসই-৩০ সূচক ৭ দশমিক ৩১ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১২৯ পয়েন্টে এবং ডিএসইএস শরীয়াহ সূচক ৩ দশমিক ৯৫ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩১৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এসবের ফলে ডিএসইতে বাজার মূলধন অর্থাৎ বিনিয়োগকারীদের পুঁজি ৩ হাজার ৩৪ কোটি ৫৩  লাখ ৭৭ হাজার ৫৭৬ টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৩ হাজার ১৪৭ কোটি ১৭ লাখ ৮  হাজার ৬২৩ টাকায়। এর আগের সপ্তাহের বাজার মূলধন ছিলো ৩ লাখ ৯০ হাজার ১১২ কোটি ৬৩ লাখ ৩১ হাজার ৪৭ টাকা।
ডিএসইতে বিদায়ী সপ্তাহে লেনদেনের শীর্ষে ছিলো ‘এ’ ক্যাটাগরির ছয়টি কোম্পানি। এগুলো হচ্ছে- রূপালী ব্যাংক, কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স, প্রিমিয়ার ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, প্রগতি ইন্স্যুরেন্স এবং সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। আর ‘বি’ ক্যাটাগরির চারটি কোম্পনি হলো- সাফকো স্পিনিং, হাক্কানী পাল অ্যান্ড পেপার লিমিটেড, মুন্নু সিরামিক এবং ফাইন ফুড লিমিটেড।

সদ্য বিদায়ী সপ্তাহে দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক ৫৩ পয়েন্ট বেড়ে ১০ হাজার ৮৯৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এর আগের সপ্তাহে সিএসই’র সূচক ছিলো ১০ হাজার ৮৪৩ পয়েন্ট।

গত সপ্তাহে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১৮৪ কোটি ৫৯ লাখ ৮৯ হাজ‍ার ৪০০ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিলো ৩০৩ কোটি ৮৩ লাখ ৬৪ হাজার ৯২৭ টাকা।

লেনদেন হওয়‍া কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৬টির, কমেছে ১২০টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩ কোম্পানির শেয়ারের।

বাংলাদেশ সময়: ১০৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ২৮, ২০১৭
এমএফআই/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa