Alexa
ঢাকা, রবিবার, ১০ বৈশাখ ১৪২৪, ২৩ এপ্রিল ২০১৭
bangla news
symphony mobile

দেশেই উৎপাদিত হচ্ছে কালার মাস্টারব্যাচ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০২-১৭ ৯:০৫:৩০ পিএম
প্লাস্টিক মেলায় কালারপ্লাস মাস্টারব্যাচের স্টল/ছবি: জিএম মুজিবুর

প্লাস্টিক মেলায় কালারপ্লাস মাস্টারব্যাচের স্টল/ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: দৈনন্দিন জীবনে প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার বেড়েই চলেছে। প্লাস্টিক পণ্যের ক্রমবর্ধন চাহিদায় দেশে গড়ে উঠেছে প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। যুগের সঙ্গে পাল্লা দিতে প্লাস্টিকের পণ্যে এসেছে বাহারি নকশা ও রঙের ব্যবহার।

প্লাস্টিকের রঙিন পণ্য তৈরি করতে ব্যবহার করা হয় কালার মাস্টারব্যাচ। তবে কালার মাস্টারব্যাচ প্লাস্টিক উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলোকে বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়। এতে পণ্য উৎপাদনে হয় বাড়তি ব্যয়।

কালার মাস্টারব্যাচের চাহিদা পূরণে কালারপ্লাস মাস্টারব্যাচ ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠান দেশেই উৎপাদন করছে কালার মাস্টারব্যাচ। তাদের তৈরি মাস্টারব্যাচ ব্যবহার করছে দেশের প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। দুই বছর ধরে কোম্পানিটি কালার মাস্টারব্যাচ উৎপাদন করে আসছে।

শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চার দিনব্যাপী প্লাস্টিক মেলায় কালারপ্লাস মাস্টারব্যাচের স্টলে প্লাস্টিক ব্যবসায়ীদের বেশ ভিড় দেখা যায়।

প্রতিষ্ঠানটির সিনিয়র মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ রাসেল শেখ বাংলানিউজকে বলেন, আমরাই দেশে একমাত্র কালার মাস্টারব্যাচ উৎপাদন করছি। দেশের বড় বড় প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আমাদের কালার মাস্টারব্যাচ ব্যবহার করছে। তবে বছরে কালার মাস্টারব্যাচের চাহিদা ১ হাজার টন। সেখানে ‌আমরা উৎপাদন করছি মাত্র সাড়ে তিনশো টন। মাত্র শুরু করেছি, আস্তে আস্তে এগোনোর চেষ্টা করছি।প্লাস্টিক মেলায় কালারপ্লাস মাস্টারব্যাচের স্টল/ছবি: জিএম মুজিবুরতিনি বলেন, বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে কাজ চলছে। এখন চারটি মেশিন দিয়ে কালার মাস্টারব্যাচ তৈরি হচ্ছে। ছয় মাসের মধ্যে আরও তিনটি মেশিন আনা হচ্ছে। এক বছরের মধ্যে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে আমাদের পণ্য রপ্তানি করবো।

রাছেল শেখ আরও বলেন, বিশ্বের নাম করা ৪ জন ক্যামিকেল স্পেশালিস্ট আমাদের প্রতিষ্ঠানে কাজ করে। এছাড়া বুয়েটের শিক্ষার্থীদেও কালার মাস্টারব্যাচ তৈরিতে ব্যবহার করা হচ্ছে। কালার মাস্টারব্যাচ তৈরিতে ব্যবহার করা হয় পৃথিবীর বিখ্যাত কেমিকেল কোম্পানির পিগমেন্ট, বাহক ভার্জিন রেজিন পাউডার ও অন্যান্য যোজনীয়। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি প্রতিরোধক প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে তীব্র রোদের আলোতেও প্লাস্টিক পণ্যের রঙ অক্ষুণ্ণ, উজ্জ্বল ও দীর্ঘস্থায়ী হয়। কালার মাস্টারব্যাচ দ্বারা প্লাস্টিক পণ্যে ৫ আইটেমের রঙ ব্যবহার করে তিনশো শেডের রঙ করা যায়।

**প্লাস্টিক মেলায় ওয়াটার কুলিং টাওয়ার

বাংলাদেশ সময়: ২১০৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৭
এমসি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

You May Like..