[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২১ মে ২০১৮

bangla news

সন্ত্রাস, জঙ্গি ও মাদক নির্মূলে ঐক্য চাই: নাছির

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-১৪ ৭:১৮:২০ পিএম
বক্তব্য দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন

বক্তব্য দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন

চট্টগ্রাম: সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূলে দলমত-নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার তাগিদ দিয়ে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, আমাদের মধ্যে রাজনৈতিক বিভাজন থাকতে পারে, ধর্মীয় ভাবেও আমরা একেকজন একেক ধর্মের অনুসারী হতে পারি। কিন্তু সমাজের শান্তিশৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদককে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিহত করা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ২৯ নম্বর পশ্চিম মাদারবাড়ি ওয়ার্ডে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জনমত তৈরি করা গেলে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূল কোনো ব্যাপার নয়। এ ব্যাপারে শুধু প্রশাসনকে দায়ী করলে হবে না। নাগরিক হিসেবে আমাদেরও অনেক দায়িত্ব রয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মোহাম্মদ জোবায়ের। বক্তব্য দেন রাজনীতিক শেখ মোহাম্মদ ইসহাক, শ্রমিকনেতা সফর আলী, চসিকের আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি এএইচএম সোহেল, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফেরদৌসি আকবর, সাবেক কাউন্সিলর আলী বক্স, জয়নাল আবেদীন, চসিকের স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা জজ) জাহানারা ফেরদৌস, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির সদস্যসচিব আফিয়া আখতার, মহল্লা সর্দার শওকত আলী, মনির আহমদ, নুরুল হক, এমএ হানিফ, প্রকৌশলী আবদুল করিম, নুরুল ইসলাম নুরু, মোহাম্মদ নাসের, কাজী দুলাল প্রমুখ। 

মেয়র সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদক নির্মূলে সামাজিক কর্মকাণ্ড হিসেবে প্রতিটি ওয়ার্ডে কমিটি গঠনের পাশাপাশি প্রতি শুক্রবার জুমার খুতবায় এ ব্যাপারে নাগরিকদের সচেতন করে ইমামদের বক্তব্য দেওয়ার জন্য কাউন্সিলরদের উদ্যোগ নিতে বলেন।

তিনি বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। আল্লাহর নবী চরম বিপদেও ধৈর্য ও ন্যায়ের পথে সব সমস্যা মোকাবেলা করেছেন। ইসলামে উগ্রতা ও সন্ত্রাসের কোনো স্থান নেই।

জঙ্গি তৎপরতা মোকাবেলায় অভিভাবকদের সন্তানদের দিকে বিশেষ নজর রাখার আহ্বান জানান মেয়র। এ ব্যাপারে মসজিদ, মন্দির ও গির্জার পুরোহিত ও ধর্মীয় প্রধানদের দায়িত্ব রয়েছে।

মাদারবাড়ি মাঝিরঘাট এলাকার যানজট নিরসন প্রসঙ্গে মেয়ের বলেন, এ এলাকার স্থানীয় অনেক অধিবাসী পরিবহন ব্যবসা ও শিপব্রেকিং ব্যবসায় জড়িত। কাজেই এ এলাকার যানজটের জন্য শুধু প্রশাসনকে দায়ী করলে হবে না, এ সমস্যার সমাধানে নিজেদের মধ্যে সমন্বয় প্রয়োজন।

মেয়র এ ব্যাপারে এলাকাবাসী ঐকমত্যে পৌঁছালে পুলিশ, প্রশাসন ও তার পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বস্ত দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৮

এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa