[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ মাঘ ১৪২৪, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮

bangla news

কর্ণফুলীতে চারজন নয়, দুই নারী ধর্ষণের শিকার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০১-১৪ ৭:০৯:৫১ পিএম
লোগো

লোগো

চট্টগ্রাম: নগরীর কর্ণফুলী থানা এলাকায় প্রবাসীর বাড়িতে ঢুকে ধর্ষণের ঘটনায় চার নারী আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।  এদের মধ্যে দুজন নারী তাদের ধর্ষণের কথা জানিয়েছেন।  বাকি দুজন ‍জানিয়েছেন, তাদের ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছিল।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আবু ছালেম মোহাম্মদ নোমান ভিকটিম হিসেবে চার নারীর জবানবন্দি রেকর্ড করেন।  মামলার তদন্তকারী সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) তাদের জবানবন্দি নেওয়ার জন্য আদালতে নিয়ে গিয়েছিল।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী বাংলানিউজকে বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ২২ ধারায় চার নারীর জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে।  এতে দুজন ধর্ষিত হওয়ার কথা জানিয়েছেন।  অন্যরা তাদের ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন।

২০১৭ সালের ১২ ডিসেম্বর গভীর রাতে কর্ণফুলীর বড়উঠান ইউনিয়নের শাহ মিরপুর গ্রামে একটি বাড়িতে ডাকাতি করতে গিয়ে ধর্ষণের ঘটনা ঘটায় ডাকাতরা।  ঘটনার পর চার নারী ধর্ষণের স্বীকার হয়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়। এই চারজনের মধ্যে তিনজন প্রবাসী তিন ভাইয়ের স্ত্রী, অন্যজন তাদের বাড়িতে বেড়াতে আসা ননদ।

এই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলাটি পুলিশ সদর দফতরের নির্দেশে তদন্ত করছে পিবিআই। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনায় পিবিআই এই পর্যন্ত চারজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।  এদের মধ্যে তিনজন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

আরডিজি/টিসি

অন্তর্ভুক্ত বিষয়ঃ ধর্ষণ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa