[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৫, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

নেত্রী ঐক্য চেয়েছেন, চট্টগ্রামের নেতাদের বললেন কাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০১-১৪ ৭:৪৪:৫৪ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: প্রয়াত নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অবর্তমানে সভানেত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রামের নেতাকর্মীদের কাছে ঐক্য চেয়েছেন বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।  মহিউদ্দিনের আত্মাও চট্টগ্রামের নেতাকর্মীদের কাছে একই আহ্বান জানাচ্ছে, এমন মন্তব্যও করেছেন তিনি।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে নগরীর লালদীঘি ময়দানে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।  চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ এই শোকসভার আয়োজন করে।

ওবায়দুল কাদের প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের কথা উল্লেখ করে বলেন, আমি নেতাকর্মীদের কাছে একটি কথা বলব।  আজ সকালে নেত্রীকে যখন বলেছি আমরা চট্টগ্রামে মহিউদ্দিন ভাইয়ের স্মরণসভায় এসেছি, তখন নেত্রী আমাকে বলেছেন, ‘চট্টগ্রামে গিয়ে শুধু একটা কথা বলবে। মহিউদ্দিন চৌধুরীর ‍অবর্তমানে আমি চট্টগ্রামের নেতাকর্মীদের মধ্যে ঐক্য চাই। ’

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, নেত্রী ঐক্য চান।   আপনারা মহিউদ্দিন চৌধুরীকে যদি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে চান, তাহলে চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ করতে হবে। দু:সময়ে, দুর্দিনে মহিউদ্দিন চৌধুরী যেমন চট্টগ্রামবাসীকে ঐক্যবদ্ধ করতেন, তেমনি শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর দুর্ভেদ্য ঘাঁটি এই চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ অগ্রযাত্রা প্রত্যাশা করেছেন।

এসময় নেতাকর্মীদের হাত তুলে ঐক্যবদ্ধ থাকার ওয়াদা করান সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকা ওবায়দুল কাদের।  তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যদি ঐক্যবদ্ধ থাকে তাহলে কোন শক্তি চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের বিজয় ঠেকাতে পারবে না।

‘আপনারা ঐক্যবদ্ধ হোন।  চট্টগ্রামকে আবারও সংগ্রাম-আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ আর গণতন্ত্রের দুর্ভেদ্য ঘাঁটিতে পরিণত করুন। মহিউদ্দিন চৌধুরীর আত্মা আপনাদের এটাই আহ্বান জানাচ্ছে। ’ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন ওবায়দুল কাদের

ছাত্রলীগ-যুবলীগের অভ্যন্তরীণ সংকট সমাধানের জন্য মাহবুবুল আলম হানিফ ও এনামুল হক শামীমকে দায়িত্ব দিয়ে কাদের বলেন, তোমরা দলের সিনিয়র লিডারদের সঙ্গে কথা বলে ছাত্রলীগ-যুবলীগের মধ্যে যে সমস্যা আছে সেটার সমাধান কর।  এখানে যেন কোন ধরনের অন্তর্বিরোধ না থাকে।  কোন নেতার স্বার্থরক্ষার পাহারাদার ছাত্রলীগ-যুবলীগ হতে পারে না। ছাত্রলীগ-যুবলীগ হবে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার রাজনীতির আদর্শের হাতিয়ার।

মঞ্চে বসে থাকা নেতাদের দেখিয়ে তিনি বলেন, এখানে অনেক নেতা। এই নেতারাই নেতা বানায়।  আপনারা সবাই সংগ্রামী মানুষ।  শুধু অনুরোধ করব, পকেট কমিটি করবেন না।  কমিটি করতে গিয়ে নিজের পকেট ভারী করবেন না।  ঘরের মধ্যে ঘর করবেন না।  মশারির মধ্যে মশারি খাটাবেন না। 

‘অনেক দু:সময়ের কর্মী এখনও এখানে কোণঠাসা হয়ে আছে।  মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলাকে বলব, দু:সময়ের কর্মীদের কমিটিতে জায়গা থাকলে অন্তর্ভুক্ত করুন। অনেকেই এখানে আছেন,  কিন্তু দু:সময়ে থাকবেন না।  যখন অন্ধকার আর দুর্দিন, তখন মহিউদ্দিন। ’ বলেন ওবায়দুল কাদের

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড.হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম ও মহিউদ্দিনের সন্তান মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন ও উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া বক্তব্য রাখেন।

সংসদ সদস্যদের মধ্যে সাবেক মন্ত্রী ডা.আফছারুল আমিন, এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, দিদারুল আলম, দিদারুল আলম ও ওয়াসিকা আয়শা খান বক্তব্য রাখেন।

শোকসভায় চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল আলম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম, দক্ষিণ জেলার সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, নগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, সহ-সভাপতি নঈমউদ্দিন চৌধুরী ও খোরশেদ আলম সুজন বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

আরডিজি/টিসি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa