[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৯ আষাঢ় ১৪২৫, ২৩ জুন ২০১৮

bangla news

অস্ট্রেলিয়ায় মিললো দৈত্যাকার ফানেল ওয়েব স্পাইডার

জীববৈচিত্র্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-০২ ১২:৪১:২২ এএম
অস্ট্রেলিয়ায় মিললো দৈত্যাকার ফানেল ওয়েব স্পাইডার

অস্ট্রেলিয়ায় মিললো দৈত্যাকার ফানেল ওয়েব স্পাইডার

ঢাকা: বিশ্বের সবচেয়ে বিষাক্ত মাকড়শাদের মধ্যে অন্যতম হিসেবে বিবেচনা করা হয় ফানেল ওয়েব স্পাইডারকে। এদের বিষ একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষকে মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যে নিয়ে যেতে পারে মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ায় পাওয়া গেলো এ মাকড়শা প্রজাতিটির এক দৈত্যাকার সদস্যকে। এর ব্যাস ৭ দশমিক ৮ সেন্টিমিটার। বিশেষজ্ঞদের মতে, এখন পর্যন্ত সন্ধান পাওয়া এটিই সবচেয়ে বড় ফানেল ওয়েব স্পাইডার। 

দৈত্যাকার মাকড়শাটি পাওয়া যায় অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের সেন্ট্রাল কোস্ট এলাকায়। বর্তমানে মাকড়শাটি রাখা হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান রেপটাইল পার্কে। পার্ক কর্তৃপক্ষ বলছে, মাকড়শাটির বড় বড় বিষদাঁতগুলো সর্বক্ষণই তরল বিষে ভিজে থাকতে দেখা যায়।

অস্ট্রেলিয়ায় ফানেল ওয়েব মাকড়শাদের বেশি দেখা মেলে বর্ষাকালে। সেই হিসেবে এখন চলছে এ মাকড়শাদের ভরা মৌসুম। এদের রং কালো এবং দেহ লোমশ। আর্দ্র বা স্যাঁতসেঁতে এলাকা পছন্দ করে এরা।

এ প্রজাতির নারী মাকড়শার ব্যাস ২ ইঞ্চি পর্যন্ত বাড়ে এবং পুরুষদের আকৃতি নারীদের চেয়ে কম হয়। এদের জাল ফানেল আকৃতির হওয়ার কারণেই এমন নামকরণ।

আগে এ মাকড়শার কামড়ে মানুষের মৃত্যুর খবর মিলতো। তবে ১৯৮১ সালে এ বিষের প্রতিষেধক আবিষ্কারের পর থেকে এমনটা ঘটতে দেখা যায়নি।

তবে এ মাকড়শার ভয়ানক বিষেই রয়েছে এক বিশেষ ধরনের প্রোটিন, যা সাহায্য করে ব্রেন ড্যামেজ সারাতে। এমনকি স্ট্রোক হওয়ার বেশ কয়েক ঘণ্টা পরও তা কাজ করবে ব্রেন ড্যামেজ থেকে বাঁচাতে, এমনটাই বলেন বিশেষজ্ঞরা।

বাংলাদেশ সময়: ০০৩১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭
এনএইচটি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa