সুইচোরাগুলো এভাবেই একত্রে বসে থাকে
[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৭ ভাদ্র ১৪২৫, ২২ আগস্ট ২০১৮
bangla news

সুইচোরাগুলো এভাবেই একত্রে বসে থাকে

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-০৩ ৮:৪৪:০৪ এএম
একত্রে বসে আছে সবুজ-সুইচোরা। ছবি- সংগৃহীত

একত্রে বসে আছে সবুজ-সুইচোরা। ছবি- সংগৃহীত

মৌলভীবাজার: সবুজ রঙের ছোট্ট পাখি সুইচোরা। তাদের ভ্রাতৃত্বের বন্ধন অটুট। চলতি পথে কখনও খেয়াল করলে দেখা যাবে, ওরা একত্রে চুপচাপ বসে আছে। বিদ্যুতের তারে বা গাছের ডালে বসে তারা ভ্রাতৃত্বকে জানান দেয়। একের সঙ্গে অন্যের এটি দারুণ বন্ধন।

খোলা আকাশে উড়তে উড়তে একসময় ডানাগুলো ক্লান্ত হয়। ক্লান্ত ডানাকে একটুখানি স্বস্তি দিতে প্রথম পাখিটি যেখানে বসে, দ্বিতীয়টিও সেখানে আসে। তৃতীয়টি আবার প্রথম ও দ্বিতীয়টির পথ অনুসরণ করে। চতুর্থ, পঞ্চম বা ষষ্ঠ পাখিরাও তাই। 
 
সে বিবেচনায় সবুজ সুইচোরারা দলগত পাখি। তারা একত্রে বাস করে। কখনও জোড়ায় জোড়ায় দেখা যায়। ‘ট্রি-ট্রি-ট্রি’ স্বরে ঘন ঘন ডাকে।

বাংলাদেশ বার্ড ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রখ্যাত পাখি বিশেষজ্ঞ ইনাম আল হক বাংলানিউজকে বলেন, দিনের শুরুতে সকালের দিকে ওদের একত্রে বসে থাকতে দেখা যায়। শীত মৌসুমে একে অন্যের শরীরের উত্তাপ গায়ে লাগায়। এছাড়া উড়ে উড়ে ছুটে চলার পর কিছুটা ক্লান্তি এলে সবাই এসে কিছুক্ষণ একত্রে জুড়িয়ে নেয়।
আপন মনে বসে আছে সবুজ-সুইচোরা। ছবি- সংগৃহীত
পাখিটি সম্পর্কে ইনাম আল হক আরও বলেন, এই পাখিদের নাম সবুজ-সুইচোরা। ইংরেজি নাম Asian Green Bee-eater। এরা আকারে শালিকের ছেয়ে ছোট। দৈর্ঘ্যে এরা ১৬ থেকে ১৮ সেন্টিমিটার হয়।
 
এদের দেহ সবুজ। চোখের উপরে কালো লাইন রয়েছে। মাথার চাঁদি, ঘাড় ও কাঁধ সোনালি। বাকি দেহ সবুজ। তবে গায়ে নীলচে আভা রয়েছে। এদের লেজের মাঝখানের পালক সুঁইয়ের মতো সরু ও লম্বা। প্রজননের পর জুন-জুলাই মাসে ওরা ছানাসহ বসে থাকে
বলে জানান তিনি।
 
এই প্রজাতি সম্পর্কে তিনি বলেন, আমাদের দেশে সবুজ-সুইচোরা ছাড়াও আরও তিন প্রজাতির সুইচোরা পাখি পাওয়া যায়। এগুলো হলো নীলদাড়ি-সুইচোরা (Blue-bearded Bee-eater), খয়রামাথা সুইচোরা (Chestnut-headed Bee-eater) এবং নীল-লেজ সুইচোরা (Blue-tailed Bee-eater)।
 
বাংলাদেশ সময়: ০৮৪৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১৮
বিবিবি/আরআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa