সেলিম আজাদ চৌধুরীর দুই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন
[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ ভাদ্র ১৪২৫, ১৬ আগস্ট ২০১৮
bangla news

সেলিম আজাদ চৌধুরীর দুই বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-০৪ ৩:০৩:৫৪ পিএম
মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান

ঢাকা: লেখালেখি মানুষ নিজের তাড়নায় করে। কেউ লেখেন সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে, কেউ লেখেন মনের আনন্দে। ঔপন্যাসিক সেলিম আজাদ চৌধুরী মনের আনন্দে সরল অভিব্যক্তি প্রকাশের কবি। এমন মন্তব্য বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বলেছেন বক্তারা।

পেশায় ফার্মাসিস্ট কিন্তু মননে কবি সেলিম আজাদ চৌধুরীর ‘তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে’ (ভ্রমণ কাহিনী) ও ‘কোন কূলে মোর ভিড়ল তরী’ (উপন্যাস) বই দুটির মোড়ক উন্মোচন হয়েছে রোববার (৪ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে।। বই দুটি এসেছে বলাকা প্রকাশনা থেকে।

লেখকের বড় ভাই প্রফেসর ইমেরিটাস ড. এ কে আজাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ইমেরিটাস ড. আনিসুজ্জামান। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন কবি হেলাল হাফিজ, গীতিকার কে জি মোস্তফা, কবি ও সাংবাদিক হাসান হাফিজ, দিল মনোয়ারা মনু ও মফিদুল হক প্রমুখ।

বক্তারা লেখক সম্পর্কে বলেন, লেখার হাত তার অনেক আগে থেকেই ভালো ছিল। কিন্তু প্রকাশের কোনো আগ্রহ তার কখনই ছিল না। জীবনের বেশিরভাগ সময়টা কাটিয়েছেন আমেরিকায়। তার লেখার মধ্যে সারল্যতার প্রাধান্যটাই বেশি।

সেলিম আজাদ চৌধুরী বলেন, আমার বই প্রকাশ করাটা কাকতালীয়। হঠাৎ করেই হয়ে গেছে। এর  পেছনে আমার অসম্ভব মেধাসম্পন্ন স্ত্রী পারভীন সুলতানা ঝুমার অবদান অনেক বেশি। আমি লেখায় অনুপ্রাণিত হয়েছি শুরুতে এ কে আজাদকে দেখে। এরপর আমার শ্বশুর লেখক এ বি এম মূসার লেখালেখি ও তার জনপ্রিয়তা দেখে মুগ্ধ হয়েই লেখা শুরু করি। আমি আমার অভিজ্ঞতার আলাকে লিখি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০১৮
এমএএম/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa