[x]
[x]
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ মাঘ ১৪২৪, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮

bangla news

সেনাবাহিনী পরিচালিত বিএমটিএফ থেকেই স্মার্টকার্ড

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০১-০৮ ৬:০৪:২৬ পিএম
জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম

জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম

ঢাকা: আর কোনো বিদেশি কোম্পানি নয়, দেশীয় প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে উন্নতমানের জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টকার্ড প্রস্তুত করা হবে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পরিচালিত বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি-বিএমটিএফ থেকেই কার্ড তৈরি করে নেওয়া হবে।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বাংলানিজকে এ কথা বলেন। এর আগে তিনি বিএমটিএফ'র প্রতিনিধির সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করেন।

এনআইডি মহাপরিচালক বলেন, ফরাসি কোম্পানি অবার্থার টেকনোলজিস ১৮ মাসের মধ্যে দেশের ৯ কোটি মানুষের স্মার্টকার্ড দেবে বলে চুক্তি করেছিলো। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি ৩০ মাসেও কার্ড দিতে পারেনি। ফলে চুক্তির শর্ত ভঙ্গ করায় প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তাই এবার দেশীয় প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে স্মার্টকার্ড তৈরি করে নাগরিকদের বিতরণ করা হবে।

আশাকরি এ বছরের শেষ নাগাদ স্মার্টকার্ড তৈরিতে যেতে পারবে বিএমটিএফ। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে শিগগিরই চুক্তি হবে। ফলে দেশের সব নাগরিককে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই স্মার্টকার্ড পৌঁছে দিতে পারবো। হয়তো সে বছর জুনের মধ্যেই নতুন দেড় কোটি ভোটারকেও স্মার্টকার্ড দেওয়া শুরু করা যাবে।

তিনি বলেন, আমরা চাই বাংলাদেশ স্মার্টকার্ড রপ্তানি করবে একদিন। অন্যান্য দেশও আমাদের কাছ থেকে তৈরি করে নেবে। সেনাবাহিনীর কাছ থেকে স্মার্টকার্ড প্রস্তুত করবে ইসি 

দেশের স্বনামধন্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত টেকনিক্যাল টিমের সুপারিশ অনুযায়ী আমরা বিএমটিএফ'র কাছ থেকে স্মার্টকার্ড তৈরি করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এক্ষেত্রে ফরাসি কোম্পানি থেকে কম খরচেই কার্ড তৈরি করার চেষ্টা করবো। ফরাসি কোম্পানি বেশি কার্ড উৎপাদন করেছে, আর বিএমটিএম অপেক্ষাকৃত কম কার্ড উৎপাদন করবে, তাই দেশে কার্ড তৈরিতে তুলনামূলক কিছুটা ব্যয় বাড়বে। তবে তা সামগ্রিক অর্থে বাড়বে না।

সূত্র জানিয়েছে, বিএমটিএফ সাত মাসের মধ্যে স্মার্টকার্ড উৎপাদনে যেতে পারবে বলেছে। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন কর্মকর্তারা ধারণা করছেন, চলতি বছরের শেষ নাগাদ দেশেই উৎপাদন হবে স্মার্টকার্ড।

এনআইডি মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, দেশের দুর্নীতি কমাতে এবং সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করতে আমরা বদ্ধ পরিকর। তাই সবার হাতেই আমরা জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দিচ্ছি। ৯ কোটি নাগরিকের বাইরে ২০১৩ থেকে যে দেড় কোটি নতুন ভোটার হয়েছে, তাদেরও আমরা স্মার্টকার্ড দেড় বছরের মধ্যেই দেবো। এর আগে তাদের যাতে সেবা পেতে সমস্যা না হয়, সেজন্য ফেব্রুয়ারি থেকেই লেমিনেটেড এনআইডি তুলে দেবো। এরইমধ্যে কয়েকটি জেলায় নতুন ভোটারদের লেমিনেটিং কার্ড পৌঁছে গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৮, ২০১৭
ইইউডি/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

নির্বাচন ও ইসি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa