[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১২ ডিসেম্বর ২০১৭

bangla news

আনিসুল হকের আসন শূন্যের নব্বই দিনের মধ্যে নির্বাচন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-১২-০৩ ৩:৩০:১৮ পিএম
নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। ছবি: বাংলানিউজ

নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) সদ্য প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক মৃত্যুবরণ করায় তার আসনটি শূন্য হওয়ার নব্বই দিনের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ রোববার (৩ ডিসেম্বর) সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় প্রজ্ঞাপন জারি করে আমাদেরকে অবহিত করবে। এক্ষেত্রে যে দিন থেকে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হবে সেদিন থেকে ৯০ দিনের মধ্যে ডিএনসিসি’র নির্বাচন করা হবে।
 
তিনি বলেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচন আইন অনুযায়ী, মেয়র পদটি শূন্য হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করার আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। প্রজ্ঞাপনটি হাতে পেলে নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে।
 
আইন অনুযায়ী, স্থানীয় সরকারের সকল পর্যায়ের নির্বাচন এখন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হয়। আনিসুল হকের শূন্য এ আসনেও দলীয় প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
 
২০১৫ সালে এ নির্বাচন নির্দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছিল।
 
ডিএনসিসিতে নতুন যুক্ত হওয়া ১৮টি ওয়ার্ড নির্বাচনের বিষয়ে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, এসব ওয়ার্ডে এখনই কাউন্সিলর পদে নির্বাচন হবে কি না তা বলা যাচ্ছে না। কারণ বিষয়টি জটিল। বৈঠকে উপস্থাপনের পর এটি নিয়ে কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে।
 
এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সঙ্গে বৈঠক করেন ইউএনডিপির তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল। এতে চার কমিশনার ও ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন।
 
এ বিষয়ে তিনি বলেন, ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে নারীদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি, নির্বাচন ব্যবস্থাকে আধুনিকায়ন ও কারিগরি উন্নয়নে সহয়তা করা নিয়ে তাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।
 
ইউএনডিপি নির্বাচন কমিশনের দীর্ঘদিনের উন্নয়ন সহযোগী হিসেবে কাজ করছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৫২২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩, ২০১৭
ইইউডি/জেডএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

নির্বাচন ও ইসি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

FROM AROUND THE WEB
Alexa